আজ শুক্রবার,৬ই জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ,২০শে মে ২০২২ খ্রিস্টাব্দ,সকাল ৭:১৫

আহত স্বতন্ত্র প্রার্থী কর্মীর মৃত্যু

Print This Post Print This Post

লিপু খন্দকার, কুমারখালী :
কুষ্টিয়ার কুমারখালীর বাগুলাট ইউনিয়নে আহত স্বতন্ত্র প্রার্থীর কর্মী চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন। সোমবার রাতে নিজ বাড়িতে তিনি মারা যান। গত ২৪ অক্টোবর বর্তমান নৌকার চেয়ারম্যান প্রার্থীর তিন ছেলের আঘাতে তিনি মারাত্মক আহত অবস্থায় চিকিৎসাধীন ছিলেন। নিহত ব্যক্তি বাগুলাট ইউনিয়নের দমদমা গ্রামের ছমির উদ্দিন বিশ্বাস(৬০)।

এলাকাবাসী জানান, ২ মাস পূর্ব থেকে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে নৌকার মনোনয়ন পাওয়ার জন্য কলেজ শিক্ষক আলী হোসেন ও আজিজল জক নবার মধ্যে প্রতিযোগিতা শুরু হয়। এসময় এলাকায় আধিপত্য বিস্তার নিয়ে গত ২৪ অক্টোবর আলী হোসেনের সমর্থক ছমির উদ্দিন সকালে মাঠে ধান কাটতে গেলে বাগুলাট ইউনিয়নের বর্তমান নৌকার প্রার্থী আজিজল হক নবা বিশ্বাসের তিন ছেলে টিপু বিশ্বাস (৩০), বাবু বিশ্বাস (২৮) ও সাবু বিশ্বাস (৩৫) তাকে দেশীয় অস্ত্র দিয়ে আক্রমণ করে মারাত্মকভাবে আহত করে। সেসময় তাকে উদ্ধার করে কুষ্টিয়া সদর হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হয়। সেই থেকে প্রায় ২ মাস চিকিৎসাধীন থাকা অবস্থায় তিনি গতরাতে মারা যান। উল্লেখিত সময়ে নিহত ছমির উদ্দিনের ছেলে আব্দুল আওয়াল সোহাগ বাদী হয়ে কুমারখালী থানায় মামলা করেন।

নিহত ছমির উদ্দিনের ছেলে সোহাগ অভিযোগ করে বলেন, নবা বিশ্বাসের ছেলেদের হামলায় আহত হয়ে তার বাবা চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছে। তার বাবাকে বর্তমান নৌকার প্রার্থীর ছেলেরা মেরে ফেলেছে। কিন্তু কুমারখালী থানায় তিনি মামলা করতে গেলে মামলা নেয়া হয়নি।

কুমারখালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা কামরুজ্জামান তালুকদার জানান, এ ঘটনায় সেসময় কুমারখালী থানায় মামলা হয়েছে। আসামী ৩ জনকে আটক করা হয়েছিলো।

এ জাতীয় আরো সংবাদ