আজ শুক্রবার,২৩শে শ্রাবণ ১৪২৭ বঙ্গাব্দ,৭ই আগস্ট ২০২০ খ্রিস্টাব্দ,রাত ৪:২৮

কুমারখালীতে চাচাতো ভাইয়ের বিরুদ্ধে পলিটেকনিক ছাত্রীকে লাঞ্ছিতের অভিযোগ!

Print This Post Print This Post

কুষ্টিয়া প্রতিনিধি :
কুষ্টিয়ার কুমারখালী উপজেলায় তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে ঢাকা পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং পড়ুয়া তৃতীয় বর্ষের ছাত্রী শোভাকে (১৭) লাঠি দিয়ে পিটানোর অভিযোগ উঠেছে চাচাতো ভাই সাগরের (২২) বিরুদ্ধে। ঘটনাটি বুধবার দুপুরে পান্টি ইউনিয়নের ভালুকা বেলতলা এলাকায়।

ছবি : লাঞ্ছিতের শিকার ছাত্রী।

পলিটেকনিক ছাত্রী শোভা আক্তার অভিযোগ করে বলেন, করোনা পরিস্থিতির কারনে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকায় বাড়িতে অবস্থান করছি। বুধবার দুপুরে নব্বইয়োর্ধ দাদীকে খেতে দেয়া নিয়ে ফুফু জহুরুলের স্ত্রী রোজিনা খাতুন তার মায়ের সাথে বাকবিতন্ডায় জড়িয়ে পড়ে এবং এক পর্যায়ে হাতাহাতি শুরু হয়। শোভা দুজনের মাঝের গন্ডগোল ঠেকাতে গেলে তার চাচাতো ভাই মৃত খয়বর শেখের ছেলে সাগর (২২) লাঠি দিয়ে পিটিয়ে চোখের কোনায় ও কপালসহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাত করে আহত করে। সে আরো বলেন, আমার মাকেও ফুফু ও চাচাতো ভাই মারপিট করে। বর্তমানে আহত ছাত্রী কুমারখালী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

অভিযুক্ত সাগর মারপিটের ঘটনা অস্বীকার করে বলেন, ফুফুদের সাথে ঝগড়া চলছিল শোভাদের।আমি দুর থেকে দেখেছি। এসব মিথ্যা ও বানোয়াট।

এ ব্যাপারে চৌরঙ্গী তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ ইন্সপেক্টর রাকিব হাসান বলেন, আমি সরেজমিন গিয়েছিলাম।দাদীকে খাবার দেয়া নিয়ে ঝামেলা হয়েছে। মেয়েটির চোখের কোনায় আঘাতের চিহৃ আছে। কিন্তু সাগর নামের ছেলেটি মারার কথা অস্বীকার করছে। এখনো পর্যন্ত কোন লিখিত অভিযোগ আমরা পাইনি।

এ জাতীয় আরো সংবাদ