আজ বুধবার,২৪শে আষাঢ় ১৪২৭ বঙ্গাব্দ,৮ই জুলাই ২০২০ ইং,দুপুর ১২:৪১

গীবত ও আন্দাজে কথা বলার অপকারিতা

Print This Post Print This Post

শৈলবার্তা ইসলামী ডেস্ক :
গীবত ও আন্দাজে কথা বলার প্রবণতা আমাদের মাঝে ব্যাপকভাবে চলমান। আমরা গীবত ও আন্দাজে কথা বলাকে আমাদের রুটিন বানিয়ে নিয়েছি বললে বেশি ভুল হবে না। কিন্তু আমরা কি কখনো ভেবে দেখেছি গীবত ও আন্দাজে কথা বলা কতটা গুনাহের কাজ। আমরা ব্যক্তির গীবত বা দোষচর্চা করছি অথবা তার সম্পর্কে আন্দাজে কথা বলছি অহরহ। জ্ঞানী মানুষ যেমন আছে এ কাতারে আবার মূর্খ মানুষের সংখ্যাও কম নয়।

গীবত সম্পর্কে আল্লাহ তায়ালা পবিত্র কুরআনুল বলেছেন:

﴿ وَلَا تَجَسَّسُوا وَلَا يَغْتَبْ بَعْضُكُمْ بَعْضًا ۚ أَيُحِبُّ أَحَدُكُمْ أَنْ يَأْكُلَ لَحْمَ أَخِيهِ مَيْتًا فَكَرِهْتُمُوهُ ۚ وَاتَّقُوا اللَّهَ ۚ إِنَّ اللَّهَ تَوَّابٌ رَحِيمٌ ﴾ (الحجرات: ١٢)

অর্থাৎ তোমরা একে অপরের পশ্চাতে নিন্দা (গীবত) করো না। তোমাদের মধ্যে কি কেউ তার মৃত ভ্রাতার গোশত ভক্ষণ করতে চাইবে? বস্তুতঃ তোমরা তো এটাকে ঘৃণাই কর। তোমরা আল্লাহকে ভয় কর। আল্লাহ তাওবা গ্রহণকারী, পরম দয়ালু। (সূরা হুজুরাত ১২ আয়াত)

আল্লাহ তায়ালা আমাদের যে বিষয়ের প্রতি জ্ঞান নেই তার পিছনে ছুটতে নিষেধ করেছেন।

তিনি বলেনঃ

﴿وَلَا تَقْفُ مَا لَيْسَ لَكَ بِهِ عِلْمٌ ۚ إِنَّ السَّمْعَ وَالْبَصَرَ وَالْفُؤَادَ كُلُّ أُولَٰئِكَ كَانَ عَنْهُ مَسْئُولًا﴾ (الاسراء: ٣٦)

অর্থাৎ যে বিষয়ে তোমার কোন জ্ঞান নেই সেই বিষয়ে অনুমান দ্বারা পরিচালিত হইয়ো না। নিশ্চয় কর্ণ, চক্ষু ও হৃদয় ওদের প্রত্যেকের নিকট কৈফিয়ত তলব করা হবে। (সূরা বনী ইসরাইল ৩৬ আয়াত)

আমরা যে কথায় বলি না কেনো চিন্তা ভাবনা করে কথা বলতে হবে কেননা আমাদের সমস্ত কিছুই লিপিবদ্ধ করার জন্য প্রহরী নিয়োজিত রয়েছে।

আল্লাহ তায়ালা বলেন :

﴿ مَا يَلْفِظُ مِنْ قَوْلٍ إِلَّا لَدَيْهِ رَقِيبٌ عَتِيدٌ﴾ (ق: ١٨)

অর্থাৎ মানুষ যে কথাই উচ্চারণ করে (তা লিপিবদ্ধ করার জন্য) তৎপর প্রহরী তার নিকটেই রয়েছে। (সূরা ক্বাফ ১৮ আয়াত)

ধারনা বা আন্দাজে কথা বলা সম্পর্কে :

রাসূল ﷺ বলেছেন :

ﺇِﻳَّﺎﻛُﻢْ ﻭَﺍﻟﻈَّﻦَّ ﻓَﺈِﻥَّ ﺍﻟﻈَّﻦَّ ﺃَﻛْﺬَﺏُ ﺍﻟْﺤَﺪِﻳﺚ

তোমরা ধারণা-অনুমান থেকে বেঁচে থাক কারণ ধারণা :

অনুমান সর্বাপেক্ষা মিথ্যা কথা। [সহীহুল বুখারী

হা/৬০৬৬, ৬৭২৪, সহিহ মুসলিম হা/৬৪৩০]

রাসূল ﷺ আরও বলেছেন :

ﻛَﻔَﻰ ﺑِﺎﻟْﻤَﺮْﺀِ ﻛَﺬِﺑًﺎ ﺃَﻥْ ﻳُﺤَﺪِّﺙَ ﺑِﻜُﻞِّ ﻣَﺎ ﺳَﻤِﻊَ

কোন ব্যক্তি মিথ্যাবাদী হওয়ার জন্য এতটুকুই যথেষ্ট যে, সে যা শুনে (বিনা যাচাই-এ) তাই বলে বেড়ায়।[মুসলিম ভুমিকা হা/৫]

আল্লাহ তায়ালা আমার নিজের ও আপনাদেরকে গীবত ও ধারনা বা আন্দাজে কথা বলা থেকে হেফাজত করুন। (আমীন)

লেখক : মুহা: আব্দুল্লাহ আল আফিক, ঝিনাইদহ।

এ জাতীয় আরো সংবাদ