আজ শনিবার,২১শে ফাল্গুন ১৪২৭ বঙ্গাব্দ,৬ই মার্চ ২০২১ খ্রিস্টাব্দ,সকাল ১১:১৫

লৌকিকতা পরিত্যাগ করতে হবে

Print This Post Print This Post

রিয়া বা লোক দেখানো আমল আমাদের দিন দিন বেড়েই চলছে। দুনিয়াবি ক্ষেত্রে লৌকিকতা থাকলেও ইদানিং আমলের ক্ষেত্রেও লৌকিকতা বেড়ে যাচ্ছে। অথচ আমাদের প্রতিটা আমলই একমাত্র আল্লাহ তায়ালার উদ্দেশ্য হতে হবে। কোনো মানুষকে খুশি করার জন্য বা মানুষকে দেখানোর জন্য হলে হবে না; অন্যথায় পরকালে আমাদের ক্ষতিগ্রস্থদের কাতারে শামিল হতে হবে।

রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম ইরশাদ করেছেন:
“যে ব্যক্তি মানুষকে শোনানোর জন্য কোনো আমল করে,আল্লাহ তায়ালা ( কিয়ামতের দিন) তার লোক শোনানোর উদ্দেশ্য ফাঁস করে দিবেন। আর যে ব্যক্তি কোনো লোক দেখানোর জন্য কোনো আমল করে, আল্লাহ তায়ালা ( কিয়ামতের দিন) তার লোক দেখানোর উদ্দেশ্য ফাঁস করে দিবেন”(১)

আমরা যদি কোনো লোককে দেখানোর জন্য কোনো আমল করি তাহলে কিয়ামতের দিন আল্লাহ তায়ালা আমাদের কোনো প্রতিদান দিবেন না বরং যাদেরকে দেখানোর জন্য আমরা আমল করতাম তাদের কাছে পাঠিয়ে দিবেন।

মাহমুদ ইবন লাবিদ (রাঃ) থেকে বর্ণিত:

রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন:
“আমি তোমাদের ওপর যা ভয় করি তার মধ্যে সবচেয়ে ভয়ংকর হচ্ছে শিরকে আসগর (ছোট শিরক) সাহাবীগন বললেন: হে আল্লাহর রাসূল শিরকে আসগর কি? তিনি বললেন: “রিয়া (লোক দেখানো আমল) আল্লাহ তা‘আলা কিয়ামতের দিন তাদেরকে (রিয়াকারীদের) বলবেন, যখন মানুষকে তাদের আমলের বিনিময় দেওয়া হবে তোমরা তাদের কাছে যাও যাদেরকে তোমরা দুনিয়াতে দেখাতে, দেখ তাদের কাছে কোন প্রতিদান পাও কিনা”(২)

তাই আসুন!
সালাত আদায় করতে হবে বিনয়ী,নম্রতার সাথে শুধুমাত্র আল্লাহর জন্য। লোকে আমাকে নামাজী বলবে এই উদ্দেশ্য না।

রোযা আদায় করতে হবে একমাত্র আল্লাহর সন্তুষ্টির জন্য। মানুষে আমাকে রোযাদার বলবে এই উদ্দেশ্য না। হজ্ব করতে হবে শুধুমাত্র আল্লাহর মহব্বতে। লোকে আমাকে হাজি বলবে এই উদ্দেশ্য না।

দান-সদকা করতে হবে কেবলমাত্র আল্লাহর খুশির জন্য। লোকে আমাকে দানশীল বলবে এই উদ্দেশ্য না। গোপনে দান করা উত্তম।(তবে অন্যকে উৎসাহ প্রদানের জন্য প্রকাশ্য দান করাতেও কোনো সমস্য নেই)

এভাবে আমাদের প্রতিটা আমলই শুধুমাত্র আল্লাহর উদ্দেশ্য হতে হবে। তাহলেই আমরা সফলকাম হতে পারব ইনশাআল্লাহ।

আল্লাহ তায়ালা আমাদেরকে প্রতিটা আমল তাঁর উদ্দেশ্য যেন করতে পারি সেই তাওফিক দান করুন। ( আমীন)

ফুটনোট

(১) সহিহ মুসলিম ২২৮৯
(২) হাদিসে কুদসীর ৭ নং হাদীস, মুসনাদে আহমাদ

লেখক : মুহা: আব্দুল্লাহ আল মামুন, ঝিনাইদহ

এ জাতীয় আরো সংবাদ