আজ বৃহস্পতিবার,১৪ই শ্রাবণ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ,২৯শে জুলাই ২০২১ খ্রিস্টাব্দ,সকাল ৭:৪৫

শিশুকে বাঁচাতে পরিবারে আবেদন, দরকার ৫ লাখ

Print This Post Print This Post

ইবি প্রতিনিধি:
হৃৎপিন্ডের জটিলতায় দুটি ভালভই নষ্ট হওয়ার পথে শিশু আশিকুজ্জামান রাফাতের (১১)। যে বয়সে সারাক্ষণ দুরন্তপনা খেলাধুলায় মত্ত থাকার কথা সে বয়সে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে। তার চিকিৎসার জন্য প্রয়োজন ৫ লক্ষাধিক টাকা। যা তার পরিবারের পক্ষে বহণ করা অসম্ভব। এমতাবস্থায় সাহায্যের আবেদন জানিয়েছেন রাফাতের পরিবার ও তার বড়বোনের সহপাঠীরা।

ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশনের রিপোর্ট অনুযায়ী, রাফেতের হৃৎপিণ্ডের দুটি ভালভই নষ্ট হওয়ার উপক্রম। সাধারণত মানুষের হৃৎপিণ্ডের কার্যক্ষমতা ২৫ এর নিচে নামলে মানুষ বাঁচে না। অথচ হৃৎপিণ্ডের বর্তমান কার্যক্ষমতা ২৯। কর্তব্যরত চিকিৎসক বলেছেন, অতিদ্রুত তার অপারেশনের ব্যবস্থা করতে হবে। আর এ অপারেশন করাতে তার অভাবী পরিবারকে গুনতে হবে ৫ লক্ষাধিক টাকা।

রাফাতের বাড়ি ঝিনাইদহের শৈলকুপা উপজেলার দেবতলা গ্রামে। শৈলকুপা সরকারী পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের ৬ষ্ঠ শ্রেণীর মেধাবী শিক্ষার্থী রাফাত। তার বাবা একজন দরিদ্র কৃষক। বড় বোন রুপালি খাতুন কুষ্টিয়ার ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের চতুর্থ বর্ষে অধ্যয়নরত।

এছাড়া ছোট বোন রজনী খাতুন এইচএসসি পরীক্ষার্থী। কৃষক বাবা ছাড়া তার পরিবারে উপার্জনক্ষম ব্যক্তি নেই। বাবা রজব আলী মণ্ডল নিজের জমিটুকু বিক্রি করে দুই লক্ষ টাকা জোগাড় করেছেন ছেলের চিকিৎসা করাতে। কিন্তু বাকি টাকা জোগাতে দিশেহারা হয়ে পড়েছেন তিনি।

রাফাতেরক বড় বোন রুপালি খাতুন বলেন, ‘টাকা জোগাড় করতে না পেরে শুধু ওষুধই খাওয়াচ্ছি ছোট ভাইকে। অপরেশন করাতে পারছি না। আমার পরিবার কিছু টাকা জোগাড় করেছে, কিন্তু বাকি টাকা কোথায় পাবো? টাকার জন্য আমার ভাইকে কি বাঁচাতে পারবো না? সমাজের বিত্তবানদের পাশে দাঁড়ানোর অনুরোধ জানাচ্ছি।’

রাফাতকে সহায়তার জন্য বিকাশ নম্বর ০১৯৯১৮৮১৭৬০ (পার্সোনাল) এ সহায়তা পাঠাতে পারেন।

এ জাতীয় আরো সংবাদ