আজ সোমবার,২৩শে ফাল্গুন ১৪২৭ বঙ্গাব্দ,৮ই মার্চ ২০২১ খ্রিস্টাব্দ,রাত ৯:৪৮

হতাশা নয়, দু’আ করুন

Print This Post Print This Post

আপনি খুব বিপদে আছেন! আপনার বিপদ কি হযরত আদম ও হাওয়া (আ.) কে জান্নাত থেকে বের করে দেওয়ার সময় যেমন অবস্থা হয়েছিল তার থেকেও বেশী?

আপনি খুব অন্ধকারে আছেন! আপনার অন্ধকার কি হযরত ইউনুছ ( আ.) এর মাছের পেটের মধ্যে আবদ্ধ থাকাবস্থার চেয়েও বেশী?

আপনি অগ্নিপরীক্ষায় আছেন! আপনার অগ্নিপরীক্ষা কি হযরত ইবরাহীম (আ.) কে আগুনে দেওয়ার মুহূর্ত থেকেও বেশী?

আপনি খুব ভীতসশস্ত্র অবস্থায় আছেন!
আপনার ভীতসশস্ত্র থাকাটা কি হযরত মুসা ( আ.) এবং তাঁর সঙ্গীদেরকে ফিরআউন ও তার দলবল কর্তৃক ধাওয়া করার থেকেও বেশী?

আপনি খুব পেরেশানিতে আছেন!
আপনার পেরেশানি কি হযরত ঈসা ( আ.) কে অতর্কিত নৈশি আক্রমন করার থেকেও বেশী?

আপনি খুব কষ্টে আছেন! আপনার কষ্ট কি আমাদের প্রিয়নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের জীবনের প্রতিটা ধাপে ধাপে পাওয়া কষ্টের চেয়েও বেশী?

হে প্রিয়!
আমাদের জীবনে যত বিপদ-ই আসুক না কেন,আমরা কেবল আমাদের রবকেই ডেকে যাব। তাঁর কাছেই আমরা প্রার্থনার হাত সম্প্রসারিত করব। তিনিই তো হযরত আদম ও হাওয়া (আ.) এর দুআ কবুল করেছেন। তিনিই তো হযরত ইউনুছ ( আ.) এর ডাকে সাড়া দিয়ে তাকে মাছের পেট থেকে মুক্তি দান করছেন। তিনিই তো আমাদের প্রিয়নবী হযরত মুহাম্মাদ (স.)এর ডাকে সাড়া দিয়ে তাঁর জীবনের প্রতিটা পরতে পরতে সাহায্য করেছেন। তিনি তো এখনো আমাদের ডাকে সাড়া দেওয়ার জন্য প্রস্তুত।

আল্লাহ তায়ালা বলেন:
” আর যখন আমার বান্দা আমার সমন্ধে আপনাকে জিজ্ঞেস করে তখন তাদেরকে বলে দিন,নিশ্চয়ই আমি সন্নিকটবর্তী; কোনো আহ্বানকারী যখনই আমাকে আহ্বান করে তখনই আমি তার আহ্বানে সাড়া দিয়ে থাকি; সুতরাং তারাও যেন আমার ডাকে সাড়া দেয় এবং আমাকে বিশ্বাস করে তাহলেই তারা সঠিক পথ প্রাপ্ত ( সুরা আল- বাকারা: ১৮৬)

চলুন তাহলে আমাদের জীবনের দুঃখ,কষ্টগুলো তাঁরই কাছে জানায়। অযাচিত বেদনাগুলি তাঁর সমীপেই পেশ করি।
আর নয় হতাশা, দু’আ-ই হলো আশা”

আল্লাহ তায়ালা আমাদের তাওফিক দিন(আমীন)

লেখক : মুহা: আব্দুল্লাহ আল মামুন, ঝিনাইদহ।

এ জাতীয় আরো সংবাদ