আজ সোমবার,১৫ই অগ্রহায়ণ ১৪২৭ বঙ্গাব্দ,৩০শে নভেম্বর ২০২০ খ্রিস্টাব্দ,সকাল ৯:৫৪

হরিণাকুণ্ডুতে অনুষ্ঠিত হয়ে গেল গ্রাম বাংলার ঐতিহ্যবাহী লাঠিখেলা

Print This Post Print This Post

হরিণাকুন্ডু প্রতিনিধি :
ঝিনাইদহের হরিনাকুন্ডু উপজেলার ৪নং দৌলতপুর ইউনিয়নের দখলপুর গ্রামে মাঝেরপাড়ায় (৪ নভেম্বর) হয়ে গেল গ্রাম বাংলার ঐতিহ্যবাহি লাঠিখেলা। খেলা দেখতে বিভিন্ন এলাকা থেকে শত শত নারী-পুরুষ, বৃদ্ধ-শিশু ভিড় জমান সেখানে। খেলার মাঠ পরিণত হয় এলাকার মানুষের মিলন মেলায়। বাংলার হারিয়ে যাওয়া ঐতিহ্য ধরে রাখতে দখলপুর গ্রামের মোঃআরফিনের নেতৃতে এই লাঠি খেলার আয়োজন করা হয়। আর মানুষকে বিনোদন দিতেই এ আয়োজন বলে জানান আয়োজকরা।

প্রতিবছরই এ ধরনের আয়োজন করার দাবি দর্শকদের।বাজছে ঢাক,ঢোল আর কাসার ঘন্টা। তালে তালে উৎসুক জনগণের আনন্দ দিতে চলে নৃত্য। এর পরই শুরু হয় লাঠির কসরত। প্রতিপক্ষের লাঠির আঘাত থেকে রক্ষা আর প্রতিপক্ষকে কাবু করার জন্য মেতে ওঠেন লাঠিয়ালরা। এই নির্মল আনন্দ উপভোগ করেন শত শত দর্শক। হাততালিতে মুখরিত হয়ে ওঠে খেলার স্থান।

এমনই রসের খেলা উপভোগ করতে দখলপুর গ্রামের লোকজন সহ আশপাশের এলাকা থেকে ছুটে আসে শত শত মানুষ। বর্তমান যুব সমাজকে অপরাধের হাত থেকে দুরে রাখতে আর গ্রামীন ঐতিহ্য তাদের সামনে তুলে ধরতে এ ধরনের আয়োজন প্রতিনিয়ত চান উৎসুক দর্শকরা।

আয়োজক কমিটির সদস্য রফিন বলেন, আমাদের এই খেলার সার্বিক তত্তাবধানে বিশারত মণ্ডল, আলম মণ্ডল, খাকচার আলী’র প্রচেষ্টায় আজকের এই আনন্দ দেয়াই ছিলো আমাদের একমাত্র লক্ষ্য।

দৌলতপুর ইউপি সদস্য সাইফুর রহমান বলেন, খেলার আয়োজকরা হারানো ঐতিহ্য বর্তমান প্রজন্মের সামনে তুলে ধরতে এ আয়োজন করেছে।

খেলোয়াড়রা বলেন, মানুষকে খেলা দেখিয়ে আনন্দ পান তাই গ্রাম-গ্রামান্তরে ছুটে আসেন খেলা দেখাতে। উল্লেখ্য দিনভর এ খেলায় অংশ নেয় ঝিনাইদহ জেলার হরিণাকুণ্ডু উপজেলার বিভিন্ন অনচলের লাঠিয়াল দল।

এ জাতীয় আরো সংবাদ